মোবাইল নাম্বার ট্র্যা'কিং বাংলাদেশ | মোবাইল নাম্বার দিয়ে লোকেশন বের করার এপস।

মোবাইল নাম্বার ট্র্যা'কিং বাংলাদেশ, মোবাইল নাম্বার ট্র্যা'কিং সফটওয়্যার

 
মোবাইল নাম্বার ট্র্যাকিং বাংলাদেশ।


মোবাইল নাম্বার ট্র্যা'কিং বাংলাদেশ:ট্র্যা'কিং শব্দের সঙ্গে আমরা অনেকেই পরিচিত। আমরা সবাই জানি মোবাইল নাম্বার ট্রা'কিং করতে পারে শুধু প্রশাসনের লোক। কিন্তু বর্তমানে তথ্য প্রযুক্তির যুগে সাধারণ মানুষও নাম্বার ট্রে'কিং করতে পারে। কিন্তু মোবাইল নাম্বার ট্রা'কিং বাংলাদেশ বের করতে কয়েকটি পদ্ধতি অনুসরণ করতে হয়। 

আমাদের যখন অপরিচিত কোন নাম্বার থেকে/অপরিচিত কোন ব্যাক্তি বারবার ফোন দিয়ে বিরক্ত করে। তখন কিন্তু আমাদের মাথায় চলে আসে, কিভাবে ওই নাম্বারের পরিচয় বের করব ‌। কিভাবে অপরিচিত ব্যক্তির নাম ও ঠিকানা বের করতে পারবো। এজন্য প্রথমে আসে পু'লি'শ প্রশাসনের সাহায্য নেওয়ার। কিন্তু আপনি ঘরে বসে স্মার্ট ফোন দ্বারা এই কাজটি করতে পারেন। আজকে আমাদের মূল আলোচ্য বিষয় হল মোবাইল নাম্বার ট্র্যা'কিং বাংলাদেশ ও মোবাইল নাম্বার দিয়ে পরিচয় বের করার উপায়। 


মোবাইল নাম্বার ট্র্যা'কিং বাংলাদেশ। 

মোবাইল নাম্বার দিয়ে অপরিচিত ব্যক্তির পরিচয় খুঁজে বের করার জন্য বর্তমানে Spyi'c অ্যাপ্লিকেশনটি অনেক জনপ্রিয়। Sp'y'ic অ্যাপ দ্বারা মোবাইল নাম্বার ট্রা'কিং করতে পারেন। কিন্তু আপনাকে অবশ্যই এই অ্যাপ্লিকেশনটির ব্যবহার আগে জেনে নিতে হবে। কারণ আপনি যদি একটা জিনিসের ব্যবহার সম্পর্কে না জানেন, তাহলে সেই অ্যাপ্লিকেশনটি দিয়ে কিছুই হবে না। Spyi'c অ্যাপ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে নিচের আর্টিকেলটি অনুসরণ করুন। 


Spyi'c কি।

Spyi'c হল একটি মোবাইল অ্যাপ। এর মাধ্যমে আপনি সহজেই মোবাইল ট্রা'কিং করা যায়। মোবাইল নাম্বার ট্রে'কিং করার পাশাপাশিও বিভিন্ন প্রকার ইমেজ, মেসেজিং ও সোশ্যাল মিডিয়া গুলো ব্রাউজিং করা যায়। এছাড়াও আপনি যদি এই অ্যাপ্লিকেশনটি পেইড ভার্সন কেনে নেন। তাহলে এরকম আরও বিভিন্ন রকম সুবিধা পেয়ে থাকবেন। 


Spyi'c কিভাবে কাজ করে?

অন্যের মোবাইল নাম্বার ট্রা'কিং করার জন্য Spyi'c অ্যাপ কাজ করে থাকে। Spyi'c দ্বারা মোবাইল নাম্বার ট্র্যা'কিং করতে হলে প্রথমেই এপ্লিকেশনটি ইন্সটল করতে হবে। এই এপ্লিকেশনটি ইন্সটল করার জন্য প্রয়োজন হবে আপনার একটা APK ফাইল। 

Spyi'c ইনস্টল করার পরে আপনাকে প্রথমেই একটা অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হবে। অ্যাকাউন্টটি তৈরি করা অত্যন্ত সহজ। অ্যাকাউন্ট তৈরি করার পর আপনাকে লগইন করতে হবে। এখন আপনার সামনে Spyi'c হোমপেজে চলে আসবে। তখন আপনি দেখবেন একটা search বক্স রয়েছে। সেখানে আপনাকে আপনার সেই অপরিচিত নাম্বার টা লিখতে হবে। লেখার পর আপনাকে সার্চ বক্সে ক্লিক করতে হবে। তখন দেখবেন আপনার সামনে একটা লোকেশন এর ম্যাপ চলে আসবে।


Spyi'c খরচ কি রকম? 

Spyi'c অ্যাপটি বিনামূল্যে ব্যবহার করলেও এর সাবস্ক্রিপশন কিছু টাকা খরচ হয়েছে। কারণ আপনি মোবাইল নাম্বার দিয়ে অন্যের লোকেশন বের করবেন, আর সেই অ্যাপ্লিকেশনটি আপনাকে বিনামূল্যে সার্ভিস দেবে। এমন তো কখনো হয় না। তাই আপনাকে প্রত্যেক মাসের জন্য 50 মার্কিন ডলার খরচ করতে হবে। যা বাংলাদেশী টাকায় মাত্র চার হাজার টাকা। 


মোবাইল নাম্বার ট্র্যা'কিং সফটওয়্যার। 

ভিকটি'মের নাম্বারের লোকেশন বের করতে হলে আপনার প্রয়োজন হবে ট্রাকিং সফটওয়্যার। এই ট্রাকিং সফটওয়্যার হলো ভিক'টি'মের লোকেশন বের করার দারুন একটি ফিচার। আপনি খুব সহজেই হাতে থাকা অ্যান্ড্রয়েড ফোনটি দ্বারাই এটি পরিচালনা করতে পারেন। তাই আজকে আপনাদের সামনে মোবাইল নাম্বার ট্রে'কিং কয়েকটি সফটওয়্যার নিয়ে আলোচনা করব। 


Location tra'cking

অপরিচিত ব্যক্তির লোকেশন বের করার অন্যতম সফটওয়্যার হলো লোকেশন ট্রা'কিং। Location track'ing সফটওয়ারের মাধ্যমে আপনি অপরিচিত ব্যক্তির লোকেশন জানতে পারেন। এজন্য আপনাকে প্রথমে Location track'ing ওয়েবসাইটে সাইন ইন/ লগইন করতে হবে। 

লগইন করার পর আপনার সামনে Location tracking ড্যাশবোর্ড শো করবে। তখন দেখবেন বাম সাইডে সার্চ বক্স রয়েছে। ওই সার্চ বক্সে আপনার কাঙ্ক্ষিত ১১ ডিজিটের সংখ্যা লিখবেন। এখন আপনাকে সেই নাম্বারটি সার্চ অপশনে গিয়ে ক্লিক করতে হবে। খুব সহজেই এই কয়েকটি পদ্ধতি অনুসরণ করে, আপনি ভিক'টিম এর লোকেশন জানতে পারেন। 


Google map

আগের দিনে মোবাইল নাম্বার দিয়ে ট্রা'কিং করতে আমাদের সি'আ'ই'ডির সহায়তা নিতে হতো। কিন্তু বর্তমান এই ডিজিটাল যুগে ঘরে বসেই এটা বের করা যায়। ডিজিটাল এই গ্রুপে আমাদের সব থেকে বেশি সহায়তা করে Google। গুগলের অনেক কয়েকটি সার্ভিস রয়েছে। সেই কাঙ্ক্ষিত আরেকটি সার্ভিস হচ্ছে গুগল ম্যাপ। এই গুগল ম্যাপ যে আপনি অপরিচিত নাম্বারের লোকেশন বের করতে ব্যবহার করতে পারেন। 

এই জন্য প্রথমেই আপনাকে Google map অ্যাপ্লিকেশনের দিয়ে সাইন আপ করতে হবে। তারপর আপনাকে ডান পাশে থাকা সার্চ বক্সে ভিক'টিমের 11 ডিজিট নাম্বার লিখতে হবে। এখন আপনাকে সর্বোচ্চ 60 সেকেন্ড অপেক্ষা করতে হবে। তারপর আপনার সামনে ভিক'টিমের সকল তথ্য আসবে। এরকমভাবে আপনি খুব সহজেই ভিক'টিমের নাম্বার ট্র্যা'ক করতে পারেন। যা বর্তমান সময়ে অনেক সহজ।


মোবাইল নাম্বার দিয়ে লোকেশন বের করার এপস। 

বর্তমানে দেখা যায় সবার হাতেই স্মার্ট ফোন। ল্যাপটপ/কম্পিউটার সবাই ব্যবহার করতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে না। তাই আমরা সবার হাতে হাতে স্মার্টফোন দেখতে পাই। কিন্তু আবার অনেকেই এটাও মনে করেন, মোবাইল অ্যাপস দ্বারা কি লোকেশন বের করা যাবে। অবশ্যই বর্তমানে এমন কিছু অ্যাপস তৈরি করা হয়েছে, যেটা মোবাইল নাম্বার মাধ্যমে লোকেশন বের করা যায়। আজকে আমরা এটাই আলোচনা করব। 


Trucaller

মোবাইল নাম্বার ট্র্যাকিং বাংলাদেশ এর জন্য Trucaller অ্যাপস দারুন কাজ করে। আপনি বিনামূল্যে এই অ্যাপস ব্যবহার করতে পারেন। আমি আপনাকে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত শিখিয়ে দিব এই অ্যাপটা কিভাবে ব্যবহার করবেন। প্রথমেই আপনাকে প্লে স্টোর থেকে Trucaller ডা'উ'ন লো'ড করতে হবে। তারপর আপনাকে সাইন আপ বাটনে ক্লিক করতে হবে। 

তারপর আপনি আপনারা সঠিক ইনফরমেশন দিয়ে একটা অ্যাকাউন্ট তৈরি করুন। এখন কি অবশ্যই এনআইডি কার্ডের সঙ্গে মিল থাকতে হবে। এখন আপনার কাছে লোকেশন ও কোন ট্রাকের পার্মিশন চাইলে। এই দুইটা বাটন আপনাকে allow করে দিতে হবে। তারপর দেখবেন Trucaller এর উপরের দিকে সার্চ বক্স অপশন রয়েছে। এখানে আপনার নাম্বারটি পেস্ট করতে হবে। আপনার সম্পূর্ণ সেটিং যদি পুরোপুরি ঠিকঠাক থাকে। তাহলে নিমিষেই পেস্ট করা নাম্বারটির লোকেশন ও পরিচয় বের হবে ‌। 


এছাড়াও আপনি গুগল প্লে স্টোরে মোবাইল নাম্বার ট্রে'কিং বাংলাদেশ অনেক অ্যাপ্লিকেশন পাবেন। কিন্তু এই সকল অ্যাপ্লিকেশনের মধ্যে হাতে গোনা কয়েকটা অ্যাপ্লিকেশন কাজ করে। এছাড়াও মোবাইল নাম্বার দিয়ে লোকেশন বের করার আরও হিডেন কিছু ট্রিক্স আছে। যা একটি কনটেন্ট মাধ্যমে বোঝানো হয়ে থাকে। এই জন্য চাইলে ইউটিউবে ভিডিও দেখতে পারেন। ভিডিও দেখলেই এই বিষয়টা নিয়ে আরো পরিষ্কার বুঝতে পারবেন। 


মোবাইল নাম্বার ট্র্যা'কিং সফটওয়্যার কিভাবে কাজ করে। 

আমরা যখন কোন অপ'রা'ধীর নাম্বার ট্র্যা'ক করতে চাই। তখন কিন্তু একটা ট্রা'কিং সফটওয়্যার এর প্রয়োজন হয়। ইতিমধ্যে আমি মোবাইল নাম্বার ট্রা'কিং সফটওয়্যার এর নাম ও ব্যবহার বলে দিয়েছি। কিন্তু আমরা অনেকেই জানিনা এই ট্রা'কিং সফটওয়্যার গুলো কিভাবে কাজ করে। 

আমরা যখন অনলাইনে থাকি তখন বিভিন্ন ওয়েবসাইটে ঘাটাঘাটি করে। তখন কিন্তু আমাদের সকল তথ্য ঐ ওয়েবসাইটে পৌঁছে যায়। এভাবে কিন্তু আমাদের মোবাইলের লোকেশন ট্র্যা'ক হয়ে থাকে। কিন্তু সকল ওয়েবসাইটের কিন্তু এমন হবে না। যে সকল ওয়েব সাইটে এরকম নতুন ফিচার যুক্ত করা আছে, সেই ওয়েবসাইটগুলোতে এই কাজগুলো হয়। 


উপসংহার। 

অতীতকালে মোবাইল নাম্বার দিয়ে আমাদের অনেকেই বির'ক্ত করতো। তখন আমরা পুলি'শের কাছে গিয়ে ডাইরি করতাম। কিন্তু ডিজিটাল বাংলাদেশের যুগে আমাদের এখন পুলি'শ প্রশা'সনের কাছে যেতে হয় না। অ্যান্ড্রয়েড ফোন দ্বারা এই কাজটি করা হয়। মোবাইল নাম্বার ট্র্যা'কিং বাংলাদেশ অনেকগুলো সফটওয়ারই আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করলাম। 

মোবাইল নাম্বার ট্র্যা'কিং বাংলাদেশ সফটওয়্যার গুলো ব্যবহার করে ভি'ক্টিমের নাম্বার খুজে পাবেন। এছাড়াও যদি সফটওয়্যার গুলোর সেটিং করতে কোন সমস্যা হয়, তাহলে অবশ্যই আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করবেন। 




Next Post
No Comment
Add Comment
comment url